Agent as own Local area in Bangladesh

Agent as own Local area in Bangladesh

Agent as own Local area in Bangladesh

মাসিক মাসিক পত্রিকা, ইসলামী সেবা সংস্থা, ওয়ালী বাজার.কম এবং পাইকারী ও  কুরিয়ার ডেলিভারীর জন্য প্রতি জেলা ও থানা শহরে ১ জন করে এজেন্ট নিয়োগ চলছে। 

বিনাপূজিতে ৪টি এজেন্সির ব্যবসা করে মাসে হাজার হাজার টাকা আয় করতে পারেন।

১) মাসিক আমার ঈমান পত্রিকার এজেন্ট হয়ে নিজ এলাকার বুক স্টলগুলোতে বিক্রি করে আয় করতে পারেন।

এজেন্টের কাজ সমূহ ঃ

ক) এজেন্টের কাছে ৫০% কমিশনে পত্রিকা চাহিদা মোতাবেক পাঠানো হবে। এজেন্টের কাজ, পত্রিকার স্টল পরিদর্শন করে, স্টল মালিকের নাম ও নম্বর সংগ্রহ করা। প্রতি স্টলে চাহিদা মোতাবেক পত্রিকা বাকীতে দিয়ে আসা। কমিশন ৩০% দেয়া। পরের মাসে নতুন পত্রিকা দেয়ার সময় বাকী আদায় করে ব্যাংকে বা বিকাশে ঢাকায় পাঠানো। এজেন্টের লাভ থাকবে ২০% টাকা।এছাড়াও কোন দানশীল, যদি পাইকারী দরে ক্রয় করে মসজিদে ফ্রি বিলি করতে আগ্রহী হলে, তাকেও নগদে ৩০% কমিশন দিবেন।

খ) তাছাড়া ছোট ছেলেদের ৩০% কমিশন দিলে, ওরা মারকাজ বা সবগুজারীর মসজিদ বা বড় জামে মসজিদে দাড়িয়ে বিক্রি করে দিবে।মারকাজে মূলধারার সাথীদের জন্য প্রথমে ফ্রি হাদিয়া দিয়ে ব্যক্তিগতভাবে গ্রাহক বাড়াাতে হবে। এতে ৫০% লাভ ঘরে বসে আসবে। পত্রিকাটির খুচরা বিক্রয় মূল্য = ১৫ টাকা হবে। এবং ইনশাল্লাহ, প্রতি মাসের ৩০ তারিখের আগেই পরের মাসের পত্রিকা (এজেন্টের চাহিদা মোতাবেক) তার হাতে পৌছে যাবে।

গ) এছাড়াও পরিচিত বন্ধুদের কাছে পত্রিকাটি হাদিয়া দিলে, পরে তারাই গ্রাহক হয়ে এজেন্টের কাছ হতে কিনে নিবে প্রতি মাসে। এতে ৫০% লাভ এজেন্টের থাকবে। উল্লেখ্য যে, প্রথম মাসে ৫০টি পত্রিকা ফ্রি হাদিয়া দেয়ার জন্য পাঠানো হবে।আর এজেন্টের চাহিদা মোতাবেক পত্রিকা পাঠানো হবে।৩ মাস পর পর অবিক্রিত পত্রিকাগুলো একসাথে ঢাকার হেড অফিসে ফেরত পাঠিয়ে দিতে পারবেন।কারন অনেকে বিগত মাসের পত্রিকা এবং বিগত বছরের ভলিয়াম কিনতে আগ্রহী থাকেন।

ঘ) এড দেয়ার রেট পত্রিকায় উল্লেখ থাকবে, তা হতের এজেন্টগন ২০% ছাড় দিয়ে এড নিতে পারবেন। বিভিন্ন পরিচিত অফিস বা দোকান বা ফেক্টরীর এড নিলে, ছাড় দেয়ার পরও, এড বাবদ আয়ের ২০% কমিশন এজেন্টের  থাকবে। বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকার- এড বুথ গুলোর সাথে যোগাযোগ করলে তারা ২০% কমিশন নিয়ে এড কালেকশন করে দেয়।

ঙ) এজেন্টের কাছে কেউ লেখা বা কোন তাবলীগ সম্পর্কৃত রিপোর্ট দিলে তা ই-মেইলে পাঠাতে হবে। ছাপা হলেই এজেন্ট কিছু বকশিশ পাবেন।এজেন্টের নিজস্ব সংগ্রহ করা রিপোর্ট বা অডিও বা ভিডিও দিলেও ছাপা হতে পারে।

উপরের ৫টি কাজ আন্তরিকতার সাথে করতে থাকলে, এক বছর পর “সাংবাদিকতার আইডি কার্ড” পাঠানো হবে। এবং ২য় বছর সফলতা দেখাতে পারলে, একজনকে জেলা ডিস্টিবিউটর বানানো হবে। তখন থানা- জেলার সিটির ওয়ার্ড এর এজেন্টগণ আপনার কাছ হতে পত্রিকা সহজে পাবেন।মনে রাখবেন, প্রতি থানায় বা জেলার সিটির প্রতি ওয়ার্ডে একজনকেই এজেন্ট করা হবে। জেলা ডিস্টিবিউটরগন ৬০% কমিশনে ১০দিন পূর্বে অগ্রীম টাকা পরিশোধের শর্তে পত্রিকা পেয়ে থাকেন। উল্লেখ্য যে, হেড অফিস হতে গ্রাহক বা বুক স্টল মালিকের কাছে সরাসরি পত্রিকা বিক্রয় ও সরবরাহ করার ক্ষমতা সংরক্ষন করেন।

২) ওয়ালী বাজার.কমের নিত্যদিনের খাদ্য-পন্য-পথ্য নিজ এলাকায় হোম ডেলিভারী করে আয় করতে পারবেন।

প্রশ্নঃ ক) ওয়ালীবাজার.কমের “এজেন্সী” কিভাবে পাবেন?    

উত্তরঃ ক) মনে রাখবেন, প্রতি থানায় বা জেলার সিটির প্রতি ওয়ার্ডে একজনকেই এজেন্ট করা হবে। অতএব আপনি আগ্রহী হলে  নীচের ফরম পূরণ করে পাঠান। আপনি নির্বাচিত হলে , আমরা আপনাকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে কল বা মেসেজ পাঠানো হবে । এক বছর হোম ডেলিভারীর কাজ আন্তরিকতার সাথে করতে থাকলে, এক বছর পর “আইডি কার্ড ও ক্রেস্ট” পাঠানো হবে এবং দুই বছর কাজ করে, সফলতা দেখাতে পারলে, যে কোন  একজনকে “জেলা ডিস্টিবিউটর ” বানানো হবে।

খ) ওয়ালী বাজার.কমে একজন এজেন্ট কিভাবে কাজ করবেন?  গ) এজেন্টে কি কি লাভ হবে?

উত্তরঃ ১) অনলাইনে আমরা লক্ষ লক্ষ টাকা খরচের মাধ্যমে কাস্টমার কালেকশন করছি । আর সেই কাস্টমার থাকে আপনার বাড়ির পাশে । আপনার এলাকায় । তাই খাদ্য-দ্রব্য, ক্রোকারিজ, ইলেকট্রনিক্স, গ্রোসারী পন্য, মেডিসিন, কসমেটিকস, শিশু পন্য, হোম ক্লিনিং সামগ্রী, লাইব্রেরী ও স্টেশনারী পন্য, গৃহস্থলী সামগ্রী ইত্যাদি নিত্য দিনের খাদ্য-পন্য-পথ্য নির্দিষ্ট দিন ও সময়ের ১ ঘন্টায় ডেলিভারী করা আপনার পক্ষে আশা করি সম্ভব ।

২) আপনার সকাল ৯টা- সন্ধ্যা ৬টা সর্বদা স্মার্ট মোবাইলে ফেসবুক মেসেঞ্জার বা ইমেইল বা কল খোলা রাখতে হবে, যাতে আপনার ফেসবুক মেসেঞ্জার বা ইমেইলে  অর্ডার আসলেই , আপনি উক্ত অর্ডার মোতাবেক আপনারই এলাকার বাজার হতে (নিজের বাজার মনে করে) বাছাই করে ভাল খাদ্য-পন্য-পথ্য ক্রয় করে বিলের ঠিকানায় ওয়ালী বাজারের স্টিকার এটে ডেলিভারী করতে পারেন । ঘরের ভিতর নিত্তি দিয়ে দিবেন, যাতে মা-বোনদের মেপে নিতে কষ্ট না হয়। কোন ক্রমে পর্দা লঙ্ঘন বা ঘরে প্রবেশ করা যাবে না। আইডি কার্ড, এপ্রোন, লিফলেট, ঝুলন্ত নিত্তি, পেকেজিং ও স্টিকার কুরিয়ারে আগেই পাঠানো হবে। এখন প্রশ্ন থাকে দোকান মালিক বাকী দিবে কেন? হাঁ আপনি বুঝিয়ে বললে বা পরিচিত দোকান হলে আপনার কার্ড ও এপ্রোন পরা দেখলে ১ ঘন্টার জন্য বাকী দিবে। মনে রাখবেন অর্ডার ইনভয়েস বা বিলটি কোন ফটোকপির দোকান হতে ২ কপি প্রিন্ট করে নিতে হবে। কাস্টমার পন্য মেপে বুঝে পেয়ে নগদ বিল পরিশোধ করবে। একটি বিল রাখবে আর অন্যটিতে স্বাক্ষর করে আপনাকে দিবে। আপনি দোকানের বকেয়া পরিশোধ করে ৫০% লাভ আপনি রাখবেন বাকী ৫০% লাভ সাথে সাথে বিকাশ করবেন। যদি কাস্টমার আপনি আপনার এলাকা হতে সংগ্রহ করেন, তবে মোবাইল দিয়ে তার চাহিদা বা লিস্টের ছবি  তুলে (কাস্টমারের নাম-মোবাইল-ঠিকানাসহ) ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠিয়ে দিলে অফিস হতে অর্ডার করে দিবে অথবা আপনিও আপনার স্মার্ট মোবাইল দিয়ে গুগলে সার্চ দিয়ে ওয়ালী বাজারে ঢুকে তার নামে জি-মেইল খুলে, তার পক্ষ হতে অর্ডার করে দিতে পারবেন। মনে রাখবেন জিমেইলটিকেই পাসওয়ার্ড দিয়ে ওয়ালী বাজারে লগইন করতে হবে। তারপর অর্ডার করতে হবে। এভাবে আপনার বন্ধু-বান্ধব ও আত্মীয়-প্রতিবেশীর কাছে গিয়ে বুঝিয়ে অর্ডার করে সফল ডেলিভারী করলে, আপনি পাবেন লাভের ৭৫%। বাকী ২৫% বিকাশে পাঠাবেন। প্রচারের জন্য লিফলেট ও স্টিকার তো আমরাই পাঠিয়ে দিব।এভাবে মাসে আপনি বা আপনার প্রতিনিধি দিয়ে অর্ডার হোম ডেলিভারী করতে থাকলে, তাদের সময় ও অর্থ সাশ্রয় হবে। মাঝে মাঝে বাচ্চাদের চকলেট বা চিপস গিফট দিবেন। তবে কাস্টমারটি রেগুলার অর্ডার দিতে থাকবে, এতে আশাকরি আপনার মাসে ২,০০০ হতে ৫,০০০ টাকা আয় করতে পারবেন । না বুঝলে গুপে মেসেজ দিবেন, কি বুঝেননি? তার উত্তর মেসেঞ্জার গ্রুপেই দেয়া হবে। প্রয়োজনে অডিও-ভিডিও দিয়ে বুঝানো হবে।

৩) ইসলামী স্বেচ্ছা সেবা সংস্থা– এই সেবামূলক প্রকল্পের জন্য নিজ এলাকায় সদস্য বাড়িয়ে অনেক আয় করতে পারেন। 

প্রশ্নঃ ক) ইসলামী স্বেচ্ছা সেবা সংস্থার “এজেন্সী” কিভাবে পাবেন?    

উত্তরঃ ক) মনে রাখবেন, প্রতি থানায় বা জেলার সিটির প্রতি ওয়ার্ডে একজনকেই এজেন্ট করা হবে। অতএব আপনি আগ্রহী হলে  নীচের ফরম পূরণ করে পাঠান। আপনি নির্বাচিত হলে , আমরা আপনাকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে কল বা মেসেজ পাঠানো হবে । এক বছর হোম ডেলিভারীর কাজ আন্তরিকতার সাথে করতে থাকলে, এক বছর পর “আইডি কার্ড ও ক্রেস্ট” পাঠানো হবে ।

খ) ইসলামী স্বেচ্ছা সেবা সংস্থার সদস্য হওয়ার নিয়মাবলী কি কি?

উত্তরঃ ইসলামী স্বেচ্ছা সেবা সংস্থা – কোন সমিতি নয়। এটা বিনিয়োগ গ্রহনকারী সংস্থা। তাই এর কোন কমিটি নেই। এর পরিচালনায় আছে একমাত্র – ওয়ালী মুহাম্মাদ ফাউন্ডেশন লিঃ।এটাকে বাইয়ে মুদারাবা ব্যবসা বলে। আপনার টাকায় কোম্পানী ঢাকায় জমি ক্রয়-বিক্রয়ের ব্যবসা করে মেয়াদ শেষে হিসাব দিবে। আল্লাহ পাক লাভ দিলে লাভের ২০% অফিস খরচ ধরা হয়। ২০% টাকা নতুন নিম্নলিখিত দ্বীনী কাজে ব্যয় হয়। এবং বাকী টাকা ৫০% ব্যবসা করার জন্য কোম্পানী পাবেন এবং ৫০% বিনিয়োগকারী পাবেন। মেয়াদ= তিন বছর।তবে মেয়াদের পূর্বে কোন বিপদে-আপদে যে কেউ আসল টাকা তিন মাসে দরখাস্তে তুলতে পারবেন। অথবা আপনার গ্রীন কার্ডটি অন্যের নিকট বিক্রি বা জামানত রেখে টাকা কর্য নিতে পারবেন।আমাদের মাসিক চাঁদাসহ অন্যান্য শর্ত সংষ্করণ করে প্রতি সদস্যের ছবি, টাকা ও বিবরনসহ “গ্রীন কার্ড” প্রদান করার ব্যবস্থা করা হয়েছে।প্রতিটি গ্রীন কার্ডের মূল্য = ৫০,০০০ টাকা। যা সর্বোচ্চ ৫ জনের নামে একটি কার্ড দেয়া যেতে পারে। অর্থ্যাৎ ৫ জন ১০,০০০ টাকা করে একত্র করে একটি গ্রীন কার্ড ক্রয় করতে পারবেন। যে দিন গ্রীন কার্ড পাবেন সে দিন হতেই মেয়াদ শুরু হবে এবং এবং আপনার টাকা জমি ক্রয়ে বিনিয়োগ করা হবে। তিন বছরে ২/৩ বার ক্রয়-বিক্রয় হলেও সব লাভ মিলিয়ে উপরের অংশানুপাতে মেয়াদান্তে লাভ বন্টন করা হবে।যে কাউকে দিয়ে, আসল টাকা ফেতর নিতে কার্ড লাগবেই। কার্ড হারিয়ে গেলে দরখাস্ত জমা দিয়ে নিজে এসে টাকা নিয়ে যেতে হবে। 

খ) ইসলামী স্বেচ্ছা সেবা সংস্থায় একজন এজেন্ট কিভাবে কাজ করবেন?  গ) এজেন্টে কি কি লাভ হবে?

উত্তরঃ ১) এলাকায় আত্মীয়-স্বজনদের বুঝিয়ে টাকা ব্যাংকের নীচের একাউন্টে জমা করলে এবং নীচের ফরম পূরন করলে  “গ্রীন কার্ড” পাঠানো হয়। একজন না পারলে ৫ জনকে একত্র করে টাকা পাঠালেও একটি কার্ড ৫ নামে দেয়া হয়। এছাড়াও সোশ্যাল মিডিয়ায় বন্ধুদের সাথে কথা বলে রাজি করাতে পারেন।আমাদের অফিসিয়াল খরচ ২০% হতে এজেন্টগনকে “গ্রীন কার্ড” প্রতি ২,০০০ টাকা বকশিস প্রদান করা হয়। মাসে ১০টি “গ্রীন কার্ড” দিতে পারলে, এজেন্ট এর আয় হবে ২০,০০০ টাকা।

Name : WALI MOHAMMAD   A/C No-  4429733002809  Sonali  Bank , Branch- Sta masjid Road Branch, Dhaka, Bangladesh.

গ) সকল সদস্যগনকে নিয়ে মেয়াদান্তে সাধারন মিটিং করে তাদের লভ্যাংশ প্রদান এবং লাভের যে ২০% অর্থ দ্বীনি কাজে ব্যয় হবে, তারজন্য  “গ্রীন কার্ড” প্রাপ্ত সদস্যগনই নিজ হাতে নিম্ন দ্বীনি খাতে ব্যয় করতে করবেন। ১) নতুন কওমী মাদ্রসা প্রতিষ্ঠা করা ২) পুরাতন মাদ্রাসাগুলোর মুহতামিমের বেতন চালানো।৩) মৌসুমি বিপদ-আপদে মানুষের জন্য অন্ন-বস্ত্রের ব্যবস্থা করা। ৪) এতীম শিশুদের কওমী মাদ্রাসায় থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা করা। এসব কাজের সার্বিক দায়িত্ব পালন করছেন এবং করবেন – ওয়ালী মুহাম্মাদ ফাউন্ডেশন লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব ওয়ালী মুহাম্মাদ সাহেব। উনার অবর্তমানে উনার বড় ছেলে সা’আদ বিন ওয়ালী।

৪) কুরিয়ার সার্ভিস – নেটওয়ার্ট এ সারা দেশে পন্য-খাদ্য পাঠিয়ে আয় করতে পারেন। 

প্রশ্নঃ ক) “কুরিয়ার সার্ভিস এজেন্সী” কিভাবে পাবেন?    

উত্তরঃ ক) মনে রাখবেন, প্রতি থানায় বা জেলার সিটির প্রতি ওয়ার্ডে একজনকেই এজেন্ট করা হবে। অতএব আপনি আগ্রহী হলে  নীচের ফরম পূরণ করে পাঠান। আপনি নির্বাচিত হলে , আমরা আপনাকে ৭২ ঘন্টার মধ্যে কল বা মেসেজ পাঠানো হবে । 

খ) ওয়ালী বাজার.কমে একজন এজেন্ট কিভাবে কাজ করবেন?  গ) এজেন্টে কি কি লাভ হবে?

উত্তরঃ ১) রপ্তানিঃ আপনার বাড়ির পাশে তাকিয়ে দেখুন অনেক খাদ্র-শস্য-পন্য অনেক কম মূলে উৎপন্ন ও ফেক্টরীতে উৎপাদিত হচ্ছে।সেগুলো গুনাগুন ও পাইকারী দরদাম করুন, রিপোর্ট তৈরী করে ওয়ালী বাজারকে জানান, আমরা উহার মূল্য ও গুনাগুন যাচাই করে অর্ডার করবো অথবা আমাদের কাস্টমারের জন্য পাইকারী অর্ডার করাবো। আপনি শুধু মধ্যস্থতা করে পাইকারী ক্রয়-বিক্রয় সম্পন্ন করে দিবেন। এজন্য ঢাকা বা অন্য কোন জেলায় যেতে হবে না। কোন বিনিয়োগ করতে হবে না। মাসে ৪/৫ টা সাপ্লাই করতে পারলে আপনি ১৬,০০০ টাকা হতে ২০,০০০ টাকা আয় করতে পারবেন।

২) আমদানীঃ আপনি লক্ষ্য করলে দেখবেন অনেক ডিলার, ডিসটিবিউটর বা পরিবেশকগণ  ঢাকার ফেক্টরী বা চায়না বা বিদেশ হতে অনেক পন্য ট্রাকে করে আপনার শহরে আসছে। এগুলোর বাজারে তা পাইকারী কত দরে বিক্রয় হয়, তার রিপোর্ট তৈরী করুন। শীট তৈরী করে ওয়ালী বাজারে মেইল করে পাঠান। আমরা আপনার রিপোর্ট তদন্ত করে এর চেয়ে কমে আপনার থানার কৃষকদের কাছে সার, কীটনাশক, কৃষি যন্ত্রপাতিসহ সকল বিদেশী খাদ্য=পন্য-পথ্য তাদের চেয়ে কম খরচে পাঠাবো আপনারই মাধ্যমে। আপনি শুধু হাসি মুখে তাদের কাছে উপস্থাপন করবেন এবং এই পাইকারী আমদানীর কাজ পরিচালনা করবেন। মাসে ৪/৫ টা সাপ্লাই করতে পারলে আপনি ১৬,০০০ টাকা হতে ২০,০০০ টাকা আয় করতে পারবেন। আমার নামও ফোন = Wali Muhammad  ফোন = 01975939501 (WhatsApp)   এবং ই-মেইল= admin@walibazar.com

 এজেন্টগনের জন্য প্রধান শর্ত সমূহঃ

১) News Paper, Product delivery, ISSS, Buy & Sale Anegcy of walibazar.com ৪ টি কাজই করতে হবে। ১ টি কাজ না করলে বাদ পরবেন।

২) আপনাকে কোন দিন এড ফি বা টাকা দিতে হবে না। তবে মানুষের মাঝে ছোট হয়ে হলেও ৪ টি কাজ করতে হবে। এরজন্য নির্দিষ্ট কোন সময় নেই। কারন এটা জব নয়।

৩) আপনার বিকাশ বা রকেট নম্বর কোন স্মার্ট মোবাইলে সারাদিন চালু রাখতে হবে। আমাদের কল রিসিভ করতে হবে।

৪) রেজিস্টার্ড লিমিডেট কোম্পানীর ৪ টি  প্রকল্পই ইসলামী শরিয়তে বৈধ বরং নেকীর কাজ ।

নীচের ফরম পূরন করে সাবমিট এ ক্লিক করুন: আপনি মনোনিত হলে ৭২ ঘন্টার মধ্যে কল করা হবে।

Agent Form

After Submit the Form You become an Agent of Walibazar.Com
  • Please Fill up this Application form and Submit. We call to you in 72 hours. If you are accepted then you got an Agency Card and some Papers & Tools. Our Email - info@walibazar.com Call for help: 01752078098 (Saddam Vai)
  • Accepted file types: jpg, gif, png, pdf.
  • Drop files here or
    Accepted file types: jpg, gif, png, pdf.
  • This field is for validation purposes and should be left unchanged.

One thought on “Agent as own Local area in Bangladesh

    Agent as own Local area in Bangladesh

Leave a Reply
আপনি কি ব্যস্ত ? বাজার করার লোক বা সময় পাচ্ছেন না ? তবে এখনই অর্ডার করুন, সময় আর অর্থ বাচান, ডেলিভারী খরচ ফ্রি! অন্য কোন চার্জ নেই। ঢাকা সিটিতে নির্দিষ্ট দিন ও সময়ের ১ ঘন্টার মধ্যে ডেলিভারী হচ্ছে । For Call order - 01752078097, 01752078099, 017520780998